আসামে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭, ৯:৩৭ অপরাহ্ণ

ভারতের আসাম রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতির অনেকটাই উন্নতি হয়েছে। তবে এখনো রাজ্যের ছয়টি জেলার ৪৫ হাজার মানুষ বন্যাকবলিত। ত্রাণশিবিরে রয়েছে ৮ হাজার ৭৯ জন। বিভিন্ন জায়গায় নদীর পানি এখনো বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। বন্যায় চলতি বছরে মোট ১৫৮ জন প্রাণ হারিয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় আসামে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। যোরহাট জেলায় পানি নেমে যাওয়ায় এখন ছয়টি জেলা বন্যাকবলিত। জেলাগুলো হলো ধেমাজি, লখিমপুর, চিরাগ, মরিগাঁও, নগাঁও ও কাছাড়। এর মধ্যে নগাঁওয়ের পরিস্থিতি সবচেয়ে ভয়াবহ। ১৬ হাজার ৪৮৪ জন শুধু এই জেলাতেই এখনো বন্যাকবলিত।

রাজ্যের প্রধান প্রধান নদীর মধ্যে ব্রহ্মপুত্র যোরহাট জেলার নিমতাইঘাট এলাকায়, ধানসিঁড়ি গোলাঘাট জেলার নুমুলিগড় এলাকায় এবং কুশিয়ারা করিমগঞ্জে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে বলে গতকাল মঙ্গলবার আসাম রাজ্য দুর্যোগ মোকাবিলা কর্তৃপক্ষ (এএসডিএমএ) সূত্রে জানা গিয়েছে। এএসডিএমএর বিবৃতি অনুযায়ী, বন্যার পানি নামছে সবখানেই।

এবারের বন্যায় ৫ হাজার ৬৮২ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে সরকারি-বেসরকারি সম্পত্তির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বাঘ, একশিঙা গন্ডার, বুনো হাতি থেকে শুরু করে বহু বন্য প্রাণীও এবারের বন্যায় প্রাণ হারিয়েছে। সরকারি হিসাবে কাজিরাঙা অভয়ারণ্যেই বন্য প্রাণী মৃতের সংখ্যা ৪০১। মানুষ মৃতের সংখ্যা এখন পর্যন্ত সরকারি হিসাবে ১৫৮।

এ বিভাগের আরো সংবাদ